Advertising
hemel
Advertising
hemel

অশালীন আচরণ তরুণীর সঙ্গে! গ্রেফতার সানি

গুরুতর অভিযোগে গ্রেফতার বাংলাদেশের জনপ্রিয় ক্রিকেটার আরাফাত সানি। ফেসবুকে ভুয়ো অ্যাকাউন্ট খুলে নিজের সঙ্গে এক তরুণীর অন্তরঙ্গ ছবি আপলোড করেছেন সানি। অভিযোগ সেই তরুণীর। অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি সর্বসমক্ষে প্রকাশ করে দেওয়া এবং আরও কিছু আপত্তিকর আচরণের অভিযোগে মহম্মদপুর থানার পুলিশ আরাফতকে গ্রেফতার করেছে। রবিবার তাঁকে আমিনবাজার থেকে গ্রেফতার করা হয়। তাঁর উপরে তথ্য প্রযুক্তি আইনের ৫৭(২) ধারায় মামলা করা হয়েছে।

পুলিশের কাছে ঐ তরুণী জানান, আরাফাতের সঙ্গে তাঁর দীর্ঘদিনের পরিচয়। আইনের পথে আরাফাত নাকি তাঁকে বিয়েও করেছিলেন। তবে বিয়ের প্রমাণপত্র হিসাবে যাবতীয় কাগজপত্রও তাঁকে দেখিয়েছিলেন আরাফত। তবে তাঁদের পরিবারের কেউই এই বিয়ের কথা জানতেন না।

তরুণীর অভিযোগ, এর পর আরাফাতের সঙ্গেই থাকতে শুরু করেন তিনি। দু’জনে একসঙ্গে তাইল্যান্ড ঘুরতেও যান। কিন্তু পরে জানতে পারেন বিয়ের যাবতীয় কাগজপত্রই ভুয়ো ছিল। আরাফাত তাঁকে নিজের বাড়িতেও নিয়ে যেতে রাজি হচ্ছিলেন না। এই নিয়ে অনেকদিন ধরেই দু’জনের ঝামেলা চলছিল। তরুণীর অভিযোগ, এরই মধ্যে আরাফাত ঐ তরুণীর নামে ভুয়ো ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খোলেন। সেখানে তাঁদের কিছু অন্তরঙ্গ ছবি আপলোড করে দেন। এর পরেই তিনি থানায় আরাফাতের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন।

মোহম্মদপুর থানার ওসি মহম্মদ মীর জামালউদ্দিন জানান, তরুণীর কথাতেও বেশ কিছু অসঙ্গতি মিলেছে। তিনি বিয়ের কোনও কাগজপত্রও দেখাতে পারেননি। তার উপর ক্রিকেটার সানি তরুণীর আনা অভিযোগকে সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছেন। উল্টে তাঁর অভিযোগ, তিনি ষড়যন্ত্রের শিকার। কেউ তাঁর কেরিয়ার নষ্ট করার জন্য এমন কাজ করে থাকতে পারেন।

আরাফাতের গ্রেফতারির খবর পেয়েই মোহাম্মদপুর থানার বাইরে তাঁর পরিবারের লোকেরা এবং ভক্তেরা ভিড় জমিয়েছেন। আর আরাফাতের ভাই ফয়সাল মোহাম্মদপুর থানার সামনে সাংবাদিকদের বলেন,‘সানি যখন মিরপুরে অনুশীলন করত তখন ঐ তরুণী তাঁকে বিরক্ত করতেন। এমনকি আমাদের বাড়িতে গিয়েও তাঁর ভাল লাগার কথা জানিয়েছিলেন। কিন্তু সানি তাঁকে পাত্তা না দেওয়াতেই তিনি এই কাজ করেছেন।’ গত বছরের মার্চ মাসে ভারত সফরে অবৈধ বোলিং অ্যাকশনের দায়ে সাময়িকভাবে খেলা থেকে সাসপেন্ড করা হয়েছিল এই স্পিনারকে। মাঠে ফেরার অপেক্ষায় ছিলেন তিনি।

Related posts