Advertising
hemel
Advertising
hemel

মুস্তাফিজ খেলবেন কি না, সেই সিদ্ধান্ত তারই!

মুস্তাফিজ খেলবেন কি না, সেই সিদ্ধান্ত তারই!

ইনজুরির  ফলে বেশ কিছু দিন ধরেই মাঠের বাইরে রয়েছেন দেশের কাটার মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমান। খেলতে পারেননি আফগানিস্তান এবং ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজে।

তবে নিউজিল্যান্ড সফরে আবার মাঠে ফিরতে পারেন এই কাটার মাস্টার। ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে মুস্তাফিজকে মাঠে দেখা যাবে কি না, সেই প্রশ্নই এখন ঘুরছে বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীদের মনে।

অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজাকেও পড়তে হয়েছে সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের সামনে। আর শেষপর্যন্ত মাঠে নামবেন নাকি নামবেন না, সেই সিদ্ধান্তটা মুস্তাফিজকেই নিতে হবে বলে জানিয়েছেন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা।

গত জুলাইয়ে ইংল্যান্ডের কাউন্টি ক্লাব সাসেক্সের হয়ে খেলার সময় চোট পেয়েছিলেন মুস্তাফিজ। এর ফলে অস্ত্রোপচারও করাতে হয়েছিল বাঁ-হাতি এই পেসারকে।

দীর্ঘ পূনর্বাসন শেষে মাঠে ফেরার মতো অবস্থায় এসেছেন এই বছরের সেরা উদীয়মান ক্রিকেটার। নিউজিল্যান্ড একাদশের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে দুই উইকেট নিয়ে ইঙ্গিতও দিয়েছেন স্বরূপে ফেরার। বর্তমানে চূড়ান্ত লড়াইয়ে মাঠে নামতে পারবেন কি না, সেটা নিয়েই চলছে জল্পনা-কল্পনা।

সোমবার ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে মুস্তাফিজের খেলার সম্ভাবনা রয়েছে কি না, এমন প্রশ্নে মাশরাফি বলেছেন, ‘ফিজিও বলেছেন, সে খেলার জন্য তৈরি। এখন খেলোয়াড় নিজে যদি মনে করে যে আমি খেলতে পারব তাহলে খেলবে। অবশ্যই আমরা চাই না যে মুস্তাফিজ চাপ নিয়ে খেলুক। দিনশেষে সিদ্ধান্তটা তাকেই নিতে হবে।’

মুস্তাফিজ শেষপর্যন্ত প্রথম ওয়ানডেতে খেলবেন কি না, তার ওপর ভিত্তি করেই সাজানো হবে প্রথম ওয়ানডের একাদশ। নিউজিল্যান্ডের পেসবান্ধব কন্ডিশনে চার পেসার নিয়ে মাঠে নামার গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে।

কিন্তু শেষপর্যন্ত উইকেটের অবস্থা এবং মুস্তাফিজের মাঠে নামার ব্যাপারটি বিবেচনা করেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন মাশরাফি, ‘এখন পর্যন্ত যতটুকু কথা হয়েছে, তাতে শোনা গেছে যে ব্যাটিং উইকেট হবে। ২৮০-৩০০ রানও হতে পারে। সেক্ষেত্রে চারজন পেসার নিয়ে খেলানোর বিষয়টি ভাবতে হবে। এখন আমরা অপেক্ষা করছি মুস্তাফিজ কী অবস্থায় থাকবে সেটার ওপরে।’

আগামী সোমবার শুরু হবে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচ। ২৯ এবং ৩১ তারিখে অনুষ্ঠিত হবে সিরিজের দ্বিতীয় এবং তৃতীয় ম্যাচ।

Related posts