Advertising
hemel
Advertising
hemel

চাল ধোওয়া পানি অথবা ভাতের মাড় কখনো ফেলবেন না, কারণ তা অবিশ্বাস্য কাজের!

ভাত হয়ে গেলে আপনি কি ভাতের ফ্যান বা মাড়টা কখনও রেখে দিয়েছেন? সুতি জামা ও কাপড়ে মাড় দেওয়ার প্রয়োজনে, মাঝেমধ্যে কেউ ভাতের ফ্যান রেখে দিলেও, বেশিরভাগ মানুষই অপ্রয়োজনীয় ধরে নিয়ে ফেলেই দেয়। তবে, জানেন কি ভাতের ফ্যান বা চাল ধোওয়া পানিতে রয়েছে ‘বিউটি সিক্রেট’? বিভিন্ন ভিটামিন এবং মিনারেলে পরিপূর্ণ। শুধু ত্বক নয়, চুলের জন্যও এটা বেশ উপকারী। আসুন জেনে নিন ঠিক কিভাবে ব্যবহার করবেন।

চুল ভালো রাখে: চুলে শ্যাম্পু করার পর ভাতের ফ্যান দিয়ে মাথাটা ভালো করে ঘষে নিবেন। কয়েক মিনিট এই অবস্থায় রেখে দিয়ে, পানিতে ভালো করে চুল ধুয়ে নিতে হবে। কিছুদিনের মধ্যেই চুল হয়ে উঠবে মসৃণ, ঝলমলে। যাদের চুলের আগা দিন দিন ফেটে যাচ্ছে, তারাও উপকৃত হবেন।

ত্বকে জৌলুস আনে: যাদের ত্বক ঔজ্জ্বল্য হারাচ্ছে, তারাও মুখে ভাতের ফ্যান মাখতে পারেন। প্রথমে উষ্ণ গরম পানিতে মুখে ধুয়ে নিতে হবে। তারপর তুলোয় করে সারা মুখে ভাতের ফ্যান ভালো করে মাখুন। কিছুক্ষণ রেখে, মুখ ধুয়ে নিতে হবে। এতে ত্বকের জৌলুস ফিরে পাওয়ার পাশাপাশি ত্বক টানটানও হবে। তাই মুখের বলিরেখা ঠেকাতে আপনি এটি ব্যবহার করতে পারেন।

Related posts