Advertising
Advertising

মুশফিকের মাইলফলক

মাত্র ৩৯ রানেই ৩ উইকেটের পতন ঘটে রবিবার মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টসে হেরে ব্যাট করতে নামা বাংলাদেশের।আর তখনই ক্রিজে নামেন উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম। ওয়ান্ডেতে ৪ হাজার রানের মাইলফলক থেকে ১২ রান দূরে দাঁড়িয়ে ছিলেন মুশফিকুর রহিম।

আর সেটা করে ফেললেন মুশফিকুর রহিম। বাংলাদেশ ক্রিকেটের ইতিহাসে মাত্র তৃতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে এই অর্জনটা করলেন ডান-হাতি ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম। মুশফিকুর রহিমের আগে এই মাইলফলকে পৌঁছে যাওয়া বাকি দুই ব্যাটসম্যান হলেন বাংলাদেশের ড্যাশিং ওপেনার তামিম ইকবাল  এবং অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। সম্প্রতি মুশফিকুর রহিমের ব্যাটিং ফর্ম খুব একটা ভাল না গেলেও এটাই মুশফিকের দ্রুততম ১ হাজার রান।

৩ থেকে ৪ হাজার রানে যেতে মুশফিকুর রহিম খেলেছেন ২৪ টি ইনিংস। আর ১ হাজার রান করেন ৫৫ ইনিংসে। আর সেখান  ২ হাজার রান করতে যেতে খেলেন ৪২ টি ইনিংস। ২ থেকে ৪ হাজারে যেতে নেয় ২৮ টি ইনিংস। মাইলফলক হয়ে গেলেও, ইনিংসটা খুব একটা বেশিদূরে এগোয়নি মুশফিকুর রহিমের। জ্যাক বলের ডেলিভারিতে পুল করতে গিয়ে ফাইন লেগে মঈন আলীর হাতে ক্যাচ তুলে দেয় মুশফিকুর ২২ তম ওভারের শেষ বলে।

আর আউট হওয়ার আগে ২৩ বলে মুশফিকুর  করেন ২১ রান।আর এদিকে, ড্যাশিং ওপেনার তামিম ইকবালও মাইলফলকের সামনে দাঁড়িয়ে ছিলেন। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ান্ডেতে সুযোগ ছিল প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ৫০০০ রান করে ফেলার সুযোগ। সেটা থেকে ৫২ রান দূরে ছিলেন তামিম ইকবাল। কিন্তু, ক্রিস ওকসের বলে আউট হওয়ার আগে মাত্র ১৪ রান করতে পারেন তামিম ইকবাল।

Related posts