Advertising
hemel
Advertising
hemel

শুক্রবার দেশে ফিরছেন মুস্তাফিজুর রহমান

শনিবারই হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছিলেন দেশের কাটার মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমান। উঠেছেন লন্ডনে তাকে আতিথ্য দেয়া এজিএম সাব্বিরের বাসায়। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী শুক্রবার বাংলাদেশে ফিরবেন বাংলাদেশের এই পেস সেনসেশন। কিন্তু দেশে ফেরার পূর্বে আগামী বুধবার বাঁ-হাতি এই পেসারকে আবারও চিকিৎসকের কাছে যেতে হবে। স্থানীয় সময় দুপর ১২টায় অভিজ্ঞ অর্থোপেডিক সার্জন অ্যান্ড্রু ওয়ালেস ফার্টিয়াস ক্লিনিকে আরেকবার দেখবেন কাটার মাস্টারকে।

বৃহস্পতিবার অভিজ্ঞ সার্জন অ্যান্ড্রু ওয়ালেসের অধীনে বাঁ কাঁধের সফল অস্ত্রোপচার হয় বাংলাদেশের এই সেনসেশনের। অস্ত্রোপচারের পর দুই রাত লন্ডনের ক্রমওয়েল হাসপাতালেই ছিলেন মুস্তাফিজ। তারপর শনিবার পূর্ব লন্ডনের ডেগেনহামে মুস্তাফিজকে নিয়ে বোনের বাসায় উঠেন সাব্বির।

এদিকে, হাত-পায়ে যাতে জড়তা না এসে যায় সেই জন্য আপাতত মুস্তাফিজকে হালকা ব্যায়ামের একটি তালিকা দেওয়া হয়েছে। ওয়ালেসের পরামর্শ অনুসারে তার ফিজিওথেরাপি শুরু হবে আরও পরে। পুনর্বাসন প্রক্রিয়া ঠিকমতো চললে পাঁচ-ছয় মাসের মধ্যে মাঠে ফিরতে পারবেন মুস্তাফিজ।

তার আগে গেল ২৯ জুলাই মুস্তাফিজের কাঁধের চোট সারাতে অস্ত্রোপচারের পরামর্শ দেন লন্ডনের অভিজ্ঞ সার্জন টনি কোচার। তারপর ম্যানচেস্টারের সার্জন লেনার্ড ফ্রাঙ্কের শরণাপন্ন হয়েছিলেন বাঁহাতি এই পেসার। তবে ফ্রাঙ্ক জানান তিনি ২২ আগস্টের পূর্বে মুস্তাফিজের কাঁধে অস্ত্রোপচার করতে পারবেন না। এর ফলে মুস্তাফিজের কাঁধে দ্রুত অস্ত্রোপচার করিয়ে নিতে ওয়ালসকেই বেছে নেয় বিসিবি।

প্রসঙ্গত, ন্যাটওয়েস্ট টি-টোয়েন্টি ব্লাস্টে সাসেক্সের হয়ে খেলতে গিয়েছিলেন মুস্তাফিজ। গত ২৩ জুলাই কাঁধের ইনজুরিতে পড়েন মুস্তাফিজ। পরদিন রয়্যাল লন্ডন কাপে সাসেক্সের হয়ে প্রথম ওয়ানডে ম্যাচ খেলতে নামার কথা ছিলো তার। সেই ম্যাচকে সামনে রেখে নেট অনুশীলনের সময় কাঁধে চোট পান বাংলাদেশের পেস আক্রমণের এই বিস্ময় বালক।

Related posts