Advertising
hemel
Advertising
hemel

উজ্জ্বল ত্বকের জন্য হারবাল বিউটি টিপস

বেশিরভাগ নারীই উজ্জ্বল ত্বকের জন্য  নানা রকমের কসমেটিক পণ্য ব্যবহার করে থাকে। যদিও এর দ্বারা  কোন উজ্জ্বল ত্বক পাওয়া হয়না। আপনার ত্বকের জন্য ভেতর থেকে এবং বাহির থেকে অনেক পুষ্টি প্রয়োজন। কেমিক্যাল কসমেটিক এই পুষ্টি সরবরাহ করতে  কখনো পারেনা এবং এরা কেবল বাহিরের ত্বকেই কাজ করে থাকে। প্যাকেটজাত পণ্য দীর্ঘদিন ব্যবহার করাও স্বাস্থ্যের জন্য খুব একটা  ভালো নয়। তাই আপনি উজ্জ্বল ত্বক পাওয়ার জন্য হারবাল পণ্য ব্যবহার করুন। এই হারবাল উপাদানগুলো  আপনি রান্নাঘরেই পাবেন এবং এরা দীর্ঘমেয়াদে ত্বকের উপর ভালো প্রভাব ফেলে। চলুন তাহলে জেনে  নেওয়া যাক ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধিতে সাহায্যকারী ভেষজ উপাদানগুলো সম্পর্কে।

১. আঙ্গুর: আপনি ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধির জন্য আঙ্গুর ব্যবহার করতে পারেন। কয়েকটি আঙ্গুর থেঁতলে নিয়ে আপনার ত্বকে সুন্দর করে লাগান।

২.শশা, গ্লিসারিন ও গোলাপজল: শশা থেঁতলে রস বের করে এর সঙ্গে গ্লিসারিন ও গোলাপজল মিশিয়ে ত্বকে ব্যবহার করলে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পায়। বাহিরে যাওয়ার পূর্বে ও বাসায় ফেরার পরে এই ফেস মাস্কটি ব্যবহার  করলে উপকার পাবেন।

৩. চন্দন, হলুদ এবং দুধ: চন্দনের মিহি গুঁড়োর সঙ্গে  সামান্য হলুদ গুঁড়ো এবং দুধ মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করতে হবে। এই পেস্ট মুখে লাগিয়ে কয়েক মিনিট অপেক্ষা করে ধুয়ে ফেলতে হবে। এতে আপনার ত্বক প্রাকৃতিকভাবে উজ্জ্বল ও সতেজ হবে।

৪. মধু ও দুধের সর: দুধের সরের সঙ্গে মধু মিশিয়ে ব্যবহার করলে ত্বক নরম ও উজ্জ্বল হয়, বিশেষ করে শীতের দিনে।

৫. টাটকা দুধ, লবণ ও লেবুর রস: টাটকা দুধের সঙ্গে এক চিমটি লবণ ও সামান্য লেবুর রস মিশিয়ে মুখে ব্যবহার করলে ত্বক পরিষ্কার হয় এবং ত্বকের ছিদ্রগুলো উন্মুক্ত হয়।

৬. টমেটোর জুস: টমেটোর জুসের সঙ্গে লেবুর রস মিশিয়ে ত্বকে ব্যবহার করলে ত্বক নরম ও উজ্জ্বল হয়।

৭. হলুদ গুঁড়ো, আটা ও তিলের তেল: হলুদ গুঁড়ো, আটা ও তিলের তেল একসঙ্গে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করতে হবে। এই মিশ্রণটি ত্বকে ব্যবহার করলে ত্বকের অবাঞ্ছিত লোম দূর হয়ে যায়, সেইসঙ্গে ত্বকের উজ্জলতাও বৃদ্ধি পায়।

৮. বাঁধাকপির জুস ও মধু: বাঁধাকপির কিছুটা অংশ থেঁতলে রস বের করুন। এই রসের সঙ্গে মধু মিশিয়ে ত্বকে ব্যবহার করলে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পায় এবং বলিরেখা প্রতিরোধ করা যায়।

৯. গাজরের জুস: ত্বকের উজ্জ্বলতা প্রাকৃতিকভাবে বৃদ্ধি করার জন্য গাজরের জুস আপনার ত্বকে চমৎকার কাজ করে। গাজর ছোট ছোট টুকরা করে ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে জুস তৈরি করে নিতে হবে।

১০. অ্যালোভেরা জুস: অ্যালোভেরা জুস ত্বকে ব্যবহার করলে ত্বকের দাগ দূর হয় এবং ত্বক হাইড্রেটেড থাকে। অ্যালোভেরা জেল ত্বকের গভীরে প্রবেশ করে চমৎকার কাজ করে।

১১. মুলতানি মাটি, গোলাপের পাপড়ি, নিম, তুলসি ও গোলাপজল: মুলতানি মাটির সঙ্গে গোলাপের পাপড়ি, তুলসি পাতার গুঁড়ো ,নিম পাতার গুঁড়ো, ও গোলাপ জল বা লেবুর রস মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে লাগালে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পায় এবং সুস্থ  ও সুন্দর ত্বক পাওয়া যায়।

Related posts