Advertising
hemel
Advertising
hemel

মুস্তাফিজদের হারিয়ে জিতল সাকিবের কলকাতা

জিতলেই প্লে অফ নিশ্চিত সাকিব আল হাসানের কলকাতার। আর এমন সমীকরণের সামনে মুস্তাফিজুর রহমানের হায়দ্রাবাদকে হারিয়ে, গুজরাট লায়ন্সের পর প্লে-অফের টিকিট নিশ্চিত করেছে সাকিব আল হাসানের কলকাতা নাইট রাইডার্স। জয়ের লক্ষে ১৭২ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ২০ ওভারে আট উইকেট হারিয়ে ১৪৯ রান তোলে মুস্তাফিজের দল হায়দ্রাবাদ। এর ফলে ২২ রানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে কলকাতা।

ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার ১৬ বলে ১৮ রান করে বিদায় নেন। আর আরেক ওপেনার শিখর ধাওয়ান ৩০ বলে চারটি চার এবং তিনটি ছক্কায় করেন ইনিংস সর্বোচ্চ ৫১ রান। নামান ওঝা ১৫ রান করে আউট হন। ১২ বলে একটি বাউন্ডারি এবং দু’টি ওভার বাউন্ডারি হাঁকিয়ে ১৯ রান করা যুবরাজ সিংকে ফেরান সাকিব আল হাসান। কেন উইলিয়ামসন করেন ৭ রান।

তাছাড়া দ্বীপক হুদা ২, হেনরিকস ১১ রান করে বিদায় নিলে জয়ের বন্দরে পৌঁছা সম্ভব হয়ে উঠেনি সানরাইজ হায়দ্রাবাদের। কলকাতা নাইট রাইডার্স এর পক্ষে সুনীল নারাইন ৪ ওভারে ২৬ রান দিয়ে সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট দখল করেছেন। সাকিব চার ওভারে ৩৪ রানের বিনিময়ে নেন একটি উইকেট। তাছাড়া চার ওভার বল করে ২৮ রান খরচায় দু’টি উইকেট পান কুলদীপ যাদব।

তারআগে কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে বাঁচা-মরার লড়াইয়ে টস হেরে তারআগে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ছয় উইকেট হারিয়ে ১৭১ রান সংগ্রহ করে সাকিবের কলকাতা । শুরুতে কলকাতার উদ্বোধনী জুটিতে আসে ৩৩ রান। ওপেনার উথাপ্পা ২৫ রানে ফিরে গেলে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারায় কলকাতা। কিন্তু সর্বোচ্চ ৫২ রান আসে ইউসুফ পাঠানের ব্যাট থেকে। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৪৮ রান করেন মানিষ পান্ডে। তাদের ব্যাটেই ১৭১ রানের পুঁজি পায় কেকেআর। কিন্তু এই ম্যাচে ব্যাট হাতে সফল ছিলেন না সাকিব আল হাসান। পঞ্চম উইকেটের পতনের পর ক্রিজে নামলেও মাত্র সাত রান তুলেই বিদায় নেন বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার।

অপরদিকে এই ম্যাচে বোলিংয়ে বেশি সুবিধা করতে পারেননি মুস্তাফিজ। চার ওভারে ৩২ রান দিয়ে নিয়েছেন একটি উইকেট। তাছাড়া দু’টি করে উইকেট নেন দীপক হুদা এবং ভুবনেশ্বর কুমার। আরও একটি নেন বারিন্দার স্রান। ম্যাচ শেষে পয়েন্ট তালিকায় শীর্ষে থাকা গুজরাটের সংগ্রহ ১৪ ম্যাচে ১৮ এবং ১৪ ম্যাচ খেলা হায়দ্রাবাদ ১৬ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে অবস্থান করছে। সমান ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে তিনে কলকাতা।

Related posts