Advertising
Advertising

পিটারসন এখন দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে খেলতে চায়

কেভিন পিটারসন ইংল্যান্ড দলে আর কখনো হয়তো ডাক পাবে না। কেভিন পিটারসন তবু আশায় থাকেন। যদি ইংল্যান্ড দলে ডাক পায় তাহলে জন্মভূমি দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে খেলার কথা কেন ভাবছেন! কিন্তু ইংলিশ দলে ব্রাত্য হয়ে আছেন বলেই কেভিন পিটারসন জন্মভূমি দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার কথা ভাবছে। কেভিন পিটারসন আগে সেভাবে স্বীকার করেনি। তবে এবার কেভিন পিটারসন স্বীকার করলেন। কেভিন পিটারসন বলছে হ্যাঁ, আমার মাথায় এই ভাবনা আছে।” কেভিন পিটারসন আইপিএলে এবার রাইজিং পুনে সুপারজায়ান্টস দলে খেলছেন।

কেভিন পিটারসন শনিবার খেলেছেন ১ম ম্যাচ। এক দেশের হয়ে খেলার পর আরেক দেশের হয়ে খেলতে হলে নির্দিষ্ট একটি সময় লাগে। সেই যোগ্যতা অর্জন করতে আরো ১ বছরের বেশি সময় লাগবে কেভিন পিটারসনের। ততদিন কেভিন পিটারসনের বয়স হবে ৩৭ বছর। তবে দারুণ অবস্থায় থাকা ইংল্যান্ডের সাবেক এই ব্যাটসম্যান ও অধিনায়ক সম্ভাবনা উড়িয়ে দেন না, “দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে খেলার যোগ্যতা পেতে আরো ১ বছর লাগবে।

আরোও অপেক্ষা করে দেখতে হবে কি হয়। তবে এটা ইংল্যান্ড দলে ডাক পাওয়া একটা অপশন। কেভিন পিটারসন বলেছে আমি খুব ভাগ্যবান ১০ বছরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ও ১০০ এর বেশি টেস্ট খেলতে পেরেছি। কেভিন পিটারসন” ২০১৪ সালের অ্যাশেজে হারের পর ইংল্যান্ড দলে জায়গা হারান। দলের অধিনায়ক অ্যালিস্টার কুক ও কোচ অ্যান্ডি ফ্লাওয়ারের সমালোচনা করেছিলো। ২০১২ সাল থেকে ইংল্যান্ড দলের সঙ্গে তার সম্পর্ক খারাপ হতে শুরু করে। দক্ষিণ আফ্রিকা দলের কাছে অ্যান্ড্রু স্ট্রসের দুর্বলতা জানিয়ে অনেক মোবাইল বার্তা পাঠানোর অভিযোগ ছিল কেভিন পিটারসনের বিরুদ্ধে।

অ্যান্ড্রু স্ট্রস এখন ইংল্যান্ড বোর্ডের ক্রিকেট ডিরেক্টর। গত বছর জানিয়েছেন, কেভিন পিটারসনকে ফেরানোর কোনো পরিকল্পনা নেয়। কেভিন পিটারসন এখন বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের ঘরোয়া লিগে খেলেন। পাকিস্তানের সুপার লিগ, অস্ট্রেলিয়ার বিগ ব্যাশ লিগ, ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ, দক্ষিণ আফ্রিকার র‌্যাম স্ল্যাম, ভারতের আইপিএল ও ইংল্যান্ডের টি-টোয়েন্টি ব্ল্যাস্ট, -সব জায়গায় তার উজ্জ্বল উপস্থিতি আছে।

Related posts