Advertising
hemel
Advertising
hemel

তারপরও গর্বিত টাইগাররা

টাইগারদের ছুড়ে দেওয়া ১৫৬ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে ৯ বল হাতে রেখেই ৩ উইকেটের জয় পেলেও তা সহজ ছিলো না অস্ট্রেলিয়ার জন্য। ১৮তম ওভারে ক্যাচ আর স্টাম্পিং মিস না হলে ফলাফল অন্যরকমও হতে পারতো। অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে সর্বোচ্চ ৫৮ রান করেন উসমান খাজা। এর আগে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের হার না মানা ২৯ বলে ৪৯ রানের ওপর ভর করে অজিদের সামনে লড়াকু স্কোর দাঁড় করায় বাংলাদেশ। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ওয়াটসন-খাজা জুটিকে দুর্দান্ত শুরু করে অস্ট্রেলিয়া। ওপেনিং জুটি থেকেই তারা তুলে নেয় ৬২ রান।

অষ্টম ওভারে ওয়াটসন রান আউটের শিকার হলে উইকেটের গেড়ো খোলে বাংলাদেশের। তবে দু’টি সহজ ক্যাচ এবং স্ট্যম্পিং মিস করায় ৩ উইকেটের হার নিয়ে মাঠ ছাড়ে টাইগাররা। টাইগারদের পক্ষে সর্বোচ্চ ২৯ বলে ৪৯ রানের ইনিংস খেলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ওয়াটসনের করা ১৯তম ওভারে তিন চারে ১৭ রান তুলে নেন তিনি। যদিও টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি বাংলাদেশের। স্কোর বোর্ডে ২ রান যুক্ত হতেই প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন সৌম্য সরকার।

দ্বিতীয় ওভারের দ্বিতীয় বলে ওয়াটসনের বলে ম্যাক্সওয়েলের তালুবন্দী হন তিনি। এরপরে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারালেও রানের চাকা সচল রাখেন টাইগার ব্যাটসম্যানরা। মাঝখানে ২৫ বলে ৩৩ রানের ইনিংসে উইকেট আটকে রাখার প্রচেষ্টা মেলে সাকিব আল হাসানের ব্যাটে। ১৬তম ওভারে দ্বিতীয় বলে শর্ট থার্ড ম্যানে নাথান কোল্টার নাইলের তালুবন্দী হন সাকিব। শেষ পর্যন্ত টাইগারদের ইনিংস থামে ১৫৬ রানে।

Related posts